শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৬:০৮ অপরাহ্ন


“মোঃ আজিমুশ শানুল হক দস্তগীর”

২য় দিন
একদিকে করোনার থাবা, অন্যদিকে পাকা ধান কাটার কাজে শ্রমিক না পাওয়ার দুশ্চিন্তা।
নভেল করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে কৃষি শ্রমিকের সংকট দেখা দেয়ায়,অসহায় ও হতদরিদ্রদের স্বেচ্ছাশ্রমে ধান কাটার উদ্দেশ্যে,

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের মাননীয় চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ এবং সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাইনুল হোসেন খান নিখিল ভাইয়ের আহবানে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক উপ-কৃষি ও সমবায় সম্পাদক, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির যুগ্ন আহবায়ক মীর মহিউদ্দিন এর উদ্যোগে চলমান সপ্তাহব্যাপী স্বেচ্ছায় ধান কাটার কার্যক্রমে দ্বিতীয় দিনে ১২/০৫/২০২০ইং তারিখে রোজ মঙ্গলবার সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন ১ নং ওয়ার্ডের অসহায় দরিদ্র কৃষক মোঃ আব্দুস শুকুর ও মোঃ আবু জাফরের ৯০শতক২কানি ৫গণ্ডা ধান কেটে কৃষকের ঘরে তুলে দেওয়া হয়।

২য় দিনে ধান কাটার কর্মসূচিতে অংশ নেন চন্দনাইশ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ দিদারুল হক দস্তগীর, সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক ফোরক আহমদ ,যুবলীগ নেতা দিদারুল হক, যুব নেতা নিয়াজুর রহমান, সিরাজুল ইসলাম, আবু,

ছাত্রলীগ নেতা তারেকুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম,মোঃ আরমান,নেজাম, সমিউল, ইয়াসিন, আরজু মিয়া ও জিহান বাবু প্রমুখ।

এ মহামারির সময়ে অসহায় দরিদ্র কৃষকের পাশে থেকে তাঁদের সোনালী ফসল ঘরে তুলতে সারদেশে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের  নেতৃবৃন্দ নিজেরা ধান কাটতে দেখা গেছে।

রমজান মাসে নিজেদের হাতে ধান কেটে ঘরে তুলতে সহায়তা করায় কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা মীর মহিউদ্দিন ও উপজেলা যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগ  নেতৃবৃন্দকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন কৃষক আব্দুস শুকুর ,আবু জাফর ও স্থানীয় এলাকাবাসী।

কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা বলেন, চন্দনাইশ উপজেলার যেকোনো প্রান্ত হতে হতদরিদ্র কৃষক ধান কাটার জন্য যোগাযোগ করলে ইনশাআল্লাহ আমরা কেটে দিবো, আমাদের ধান কাটা অব্যাহত থাকবে।

পোস্টটি শেয়ার করুন

আরও পড়ুন